ঢাকা ০৩:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আড়ত সিন্ডিকেটে বঞ্চিত কাংখিত দর থেকে

নওগাঁয় বছরে মাছ উৎপাদন হচ্ছে ৮৩ হাজার মেট্রিক টন

জেলার নিয়ামতপুরে সব চেয়ে বেশি মাছ চাষ করা হয়

মাছ চাষে বিপ্লব এসেছে নওগাঁর বরেন্দ্র ভুমিতে । দারিদ্র বিমোচন এবং বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের পাশাপাশি মেটাচ্ছে বিশাল জনগোষ্ঠীর আমিষের চাহিদা। বার্ষিক চাহিদার প্রায় ২৪ হাজার মেট্রিক টন বেশি মাছ উৎপাদন হচ্ছে জেলায় । তবে মাছের খাবারের দর দফায় দফায় বৃদ্ধি মাছ চাষীদের দু:চিন্তা বাড়িয়েছে । বিদেশে মাছ রপ্তানীর সুযোগ সৃষ্টি ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা বাড়ানোর দাবি উদ্যোক্তাদের।

রুক্ষ বরেন্দ্র ভুমিতে এক সাথে একাধিক পুকুরের এই দৃশ্য নওগাঁর নিয়ামত পুরের । বরেন্দ্র ভুমিতে গেলো দের দশকে মাছ চাষে এসেছে অভাবনীয় সাফল্য। লাভ জনক হওয়ায় এ কারবারে এগিয়ে এসেছে অনেক শিক্ষিত বেকার তরুনরা ।

স্ব নির্ভর হওয়ার স্বপ্ন বোনা এসব উদ্যাক্তারা পুকুরে চাষ করছেন দ্রত বর্ধনশীল রুই, কাতল মৃগেল তেলা পিয়া, পাঙ্গাস সহ দেশীয় হারিয়ে যাওয়া অনেক প্রজাতির মাছ । আর চাষ করা এসব জীবন্ত মাছ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে যাচ্ছে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। তবে গেলো ক মাস ধরে মাছের ফিডের দাম দফায় দফায় বৃদ্ধিতে চিন্তায় ফেলেছে মাছ চাষী উদ্যাক্তাদের ।

 মাছ চাষী সাদ্দাম হোসেন বলেন   গেলো দু বছর ভালো লাভ হলেও এখন ফিডের দাম বেশিতে লাভ কম হচ্ছে । এদিকে পুকুর থেকে তোলা মাছ আড়তে বিকাতে এসে ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের জালে দর বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশী নানা হয়রানীর শিকার মাছ চাষীরা । নিয়ামত পুরের মাছ চাষী দুরুল ইসলাম, হেমলেট সহ বেশ ক জন জানান  আড়তে ৫০ কেজিতে মন নেওয়া সহ সিন্ডিকেট করে দাম কম দেওয়ার  বঞ্চিত হচ্ছেন তারা ।

উম্মুক্ত জলাশয় ও পুকুরে মাছ চাষ বাড়াতে আধুনিক কলা কৌশল প্রদান সহ উদ্যাক্তাদের সার্বিক সহযোগিতা দেওয়ার দাবী মৎস্য বিভাগের । জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. আমিমুল ইসলাম বলেন, আমরা তরুণ উদ্যাক্তাদের মাছ চাষে আগ্রহী করতে বিভিন্ন কর্মশালার আয়োজন করছি । এ ছাড়া তাদের আধুনিক প্রযুক্তি সরবরাহ ও দিক নির্দেশনা দিয়ে আসছি । গেলো অর্থ বছরে নওগাঁ থেকে ১২২ মট্রিক টন মাছ বিদেশে রপ্তানী করে ৩ টি প্রতিষ্টান ।

৭ নদী ১২৩ বিল জলাশয় ও ৪৮ হাজার পুকুরে জেলায় নিবন্ধিত মাছ চাষী ৫২ হাজার । স্থানীয় মৎস্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে জেলায় বার্ষিক মাছের চাহিদা ৬১ হাজার মেট্রিক টন কিন্ত উৎপাদন হচ্ছে ৮৩ হাজার মেট্রিক টন

 

……………………………………………………………………………

মাছের মোট উৎপাদন বার্ষিক ৮৩৮৬১ মে. টন)

মাছের মোট চাহিদা বার্ষিক ৬০৯৮২.৬ (মে. টন)

দৈনিক মাথাপিছু ৬০ গ্রাম মাছের চাহিদা হিসেবে

মাছের উদ্বৃত্ব উৎপাদন  ২৩৮৭৮ মেট্রিক টন

নিবন্ধিত মৎস্যজীবীর সংখ্যা ১৭৭৫১ (জন)

মৎস্য চাষীর সংখ্যা ৩৩২৭৬ (জন)

সরকারী মৎস্য হ্যাচারীর সংখ্যা ৫ টি

বেসরকারী মৎস্য হ্যাচারীর সংখ্যা ২৮ টি

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

আড়ত সিন্ডিকেটে বঞ্চিত কাংখিত দর থেকে

নওগাঁয় বছরে মাছ উৎপাদন হচ্ছে ৮৩ হাজার মেট্রিক টন

আপডেট সময় ১১:০৮:৪২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১ মার্চ ২০২৩

মাছ চাষে বিপ্লব এসেছে নওগাঁর বরেন্দ্র ভুমিতে । দারিদ্র বিমোচন এবং বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের পাশাপাশি মেটাচ্ছে বিশাল জনগোষ্ঠীর আমিষের চাহিদা। বার্ষিক চাহিদার প্রায় ২৪ হাজার মেট্রিক টন বেশি মাছ উৎপাদন হচ্ছে জেলায় । তবে মাছের খাবারের দর দফায় দফায় বৃদ্ধি মাছ চাষীদের দু:চিন্তা বাড়িয়েছে । বিদেশে মাছ রপ্তানীর সুযোগ সৃষ্টি ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা বাড়ানোর দাবি উদ্যোক্তাদের।

রুক্ষ বরেন্দ্র ভুমিতে এক সাথে একাধিক পুকুরের এই দৃশ্য নওগাঁর নিয়ামত পুরের । বরেন্দ্র ভুমিতে গেলো দের দশকে মাছ চাষে এসেছে অভাবনীয় সাফল্য। লাভ জনক হওয়ায় এ কারবারে এগিয়ে এসেছে অনেক শিক্ষিত বেকার তরুনরা ।

স্ব নির্ভর হওয়ার স্বপ্ন বোনা এসব উদ্যাক্তারা পুকুরে চাষ করছেন দ্রত বর্ধনশীল রুই, কাতল মৃগেল তেলা পিয়া, পাঙ্গাস সহ দেশীয় হারিয়ে যাওয়া অনেক প্রজাতির মাছ । আর চাষ করা এসব জীবন্ত মাছ স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে যাচ্ছে রাজধানী সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। তবে গেলো ক মাস ধরে মাছের ফিডের দাম দফায় দফায় বৃদ্ধিতে চিন্তায় ফেলেছে মাছ চাষী উদ্যাক্তাদের ।

 মাছ চাষী সাদ্দাম হোসেন বলেন   গেলো দু বছর ভালো লাভ হলেও এখন ফিডের দাম বেশিতে লাভ কম হচ্ছে । এদিকে পুকুর থেকে তোলা মাছ আড়তে বিকাতে এসে ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের জালে দর বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশী নানা হয়রানীর শিকার মাছ চাষীরা । নিয়ামত পুরের মাছ চাষী দুরুল ইসলাম, হেমলেট সহ বেশ ক জন জানান  আড়তে ৫০ কেজিতে মন নেওয়া সহ সিন্ডিকেট করে দাম কম দেওয়ার  বঞ্চিত হচ্ছেন তারা ।

উম্মুক্ত জলাশয় ও পুকুরে মাছ চাষ বাড়াতে আধুনিক কলা কৌশল প্রদান সহ উদ্যাক্তাদের সার্বিক সহযোগিতা দেওয়ার দাবী মৎস্য বিভাগের । জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. আমিমুল ইসলাম বলেন, আমরা তরুণ উদ্যাক্তাদের মাছ চাষে আগ্রহী করতে বিভিন্ন কর্মশালার আয়োজন করছি । এ ছাড়া তাদের আধুনিক প্রযুক্তি সরবরাহ ও দিক নির্দেশনা দিয়ে আসছি । গেলো অর্থ বছরে নওগাঁ থেকে ১২২ মট্রিক টন মাছ বিদেশে রপ্তানী করে ৩ টি প্রতিষ্টান ।

৭ নদী ১২৩ বিল জলাশয় ও ৪৮ হাজার পুকুরে জেলায় নিবন্ধিত মাছ চাষী ৫২ হাজার । স্থানীয় মৎস্য অধিদপ্তরের তথ্য বলছে জেলায় বার্ষিক মাছের চাহিদা ৬১ হাজার মেট্রিক টন কিন্ত উৎপাদন হচ্ছে ৮৩ হাজার মেট্রিক টন

 

……………………………………………………………………………

মাছের মোট উৎপাদন বার্ষিক ৮৩৮৬১ মে. টন)

মাছের মোট চাহিদা বার্ষিক ৬০৯৮২.৬ (মে. টন)

দৈনিক মাথাপিছু ৬০ গ্রাম মাছের চাহিদা হিসেবে

মাছের উদ্বৃত্ব উৎপাদন  ২৩৮৭৮ মেট্রিক টন

নিবন্ধিত মৎস্যজীবীর সংখ্যা ১৭৭৫১ (জন)

মৎস্য চাষীর সংখ্যা ৩৩২৭৬ (জন)

সরকারী মৎস্য হ্যাচারীর সংখ্যা ৫ টি

বেসরকারী মৎস্য হ্যাচারীর সংখ্যা ২৮ টি