ঢাকা ০১:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নারায়ণগঞ্জে বিয়ের চাপ দেয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

ছবি : সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার বিশ্বনন্দী এলাকায় মঙ্গলবার(১৪ এপ্রিল) সকাল ৮টায় মাসুদা (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় গোপালদী পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ।

তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় এরই মধ্যে বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহের দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।এর আগে রাতের কোনো এক সময় বাড়ির সবার অজান্তে নিজের শোবার ঘরে তিনি ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে পুলিশের ধারণা।

ছোট বেলা থেকেই আড়াইহাজার উপজেলার বিশ্বনন্দী এলাকায় নানাবাড়িতে থাকতেন। পাশাপাশি স্থানীয় একটি স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছিলেন।

পরিবারের বরাত দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ফিরে এসআই নাছির আহমেদ জানান, মৃত মাসুদা ছোট বেলা থেকেই তার নানাবাড়ি বিশ্বনন্দী এলাকায় থাকতেন।

সেখানে স্থানীয় একটি স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করতেন। কয়েক দিন ধরেই পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বিয়ের চাপ দেয়া হচ্ছিল। কিন্তু তাতে সে রাজী হচ্ছিল না। তার পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা ছিল। এনিয়ে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে তার মনোমালিন্য দেখা দেয়।

তিনি আরও বলেন, রাতের কোনো এক সময় সে নিজের শোবার ঘরে গলায় ফাঁস দেয়। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় বিনা ময়নাতদন্তে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

 

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

নারায়ণগঞ্জে বিয়ের চাপ দেয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

আপডেট সময় ১১:৫৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল ২০২০

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার বিশ্বনন্দী এলাকায় মঙ্গলবার(১৪ এপ্রিল) সকাল ৮টায় মাসুদা (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় গোপালদী পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের পুলিশ।

তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় এরই মধ্যে বিনা ময়নাতদন্তে মরদেহের দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।এর আগে রাতের কোনো এক সময় বাড়ির সবার অজান্তে নিজের শোবার ঘরে তিনি ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে পুলিশের ধারণা।

ছোট বেলা থেকেই আড়াইহাজার উপজেলার বিশ্বনন্দী এলাকায় নানাবাড়িতে থাকতেন। পাশাপাশি স্থানীয় একটি স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছিলেন।

পরিবারের বরাত দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ফিরে এসআই নাছির আহমেদ জানান, মৃত মাসুদা ছোট বেলা থেকেই তার নানাবাড়ি বিশ্বনন্দী এলাকায় থাকতেন।

সেখানে স্থানীয় একটি স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করতেন। কয়েক দিন ধরেই পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বিয়ের চাপ দেয়া হচ্ছিল। কিন্তু তাতে সে রাজী হচ্ছিল না। তার পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা ছিল। এনিয়ে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে তার মনোমালিন্য দেখা দেয়।

তিনি আরও বলেন, রাতের কোনো এক সময় সে নিজের শোবার ঘরে গলায় ফাঁস দেয়। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় বিনা ময়নাতদন্তে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।