ঢাকা ০২:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চিকিৎসকদের পিপিই দিল জেডআরএফ-ড্যাব

চিকিৎসকদের হাতে পিপিই তুলে দেওয়া হচ্ছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সঙ্কট থেকে বাংলাদেশের মানুষ যাতে দ্রুত বেরিয়ে আসতে পারে সে জন্য নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। এ লক্ষ্যে কর্মতৎপরতা শুরু করেছে উভয় সংগঠন।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ও অন্যদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) দিয়েছে জেডআরএফ ও ড্যাব। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডক্টরস অ্যাসোসিশেয়ন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ, মহাসচিব অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুস সালাম, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের (জেডআরএফ) আহমেদ শফিকুল হায়দার পারভেজ, অধ্যাপক ড. মো. মোর্শেদ হাসান খান, ডা. শাহ মুহাম্মদ আমান উল্লাহ্, প্রকৌশলী মাহবুব, ব্যারিস্টার মীর হেলাল, অধ্যাপক ড. আব্দুল করিম,

অ্যামট্যাবের বিপ্লবুজ্জামান বিপ্লব, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, বেসরকারি মেডিক্যাল ও ডেন্টাল কলেজ শাখা ছাত্রদলের ডা. রাকিবুল ইসলাম আকাশ, আতিকুর রহমান রুমন, শায়রুল কবির খান। এছাড়া হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের ডেপুটি ডিরেক্টর ডা. এনামুল সহ চিকিৎসক, নার্সহ অন্যান্য ব্যক্তিরা।

জেডআরএফ ও ড্যাবের এ কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশবাসী এখন বৈশ্বিক মহামারি করোনার ভয়ে ভীত এবং মারাত্মক সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে।

পরীক্ষিতদের মধ্যে করোনা রোগী শনাক্তকরণের হার প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে। ঢাকাসহ সারাদেশর ২০ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের থাবা লক্ষ্য করা গেছে। এই সঙ্কট মোকাবিলায় আমাদের জাতীয় ঐক্য দরকার।

রিজভী বলেন, যখন থেকে করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব শুরু হয়েছে সরকার তখন থেকেই কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেই মেডিক্যাল সেক্টরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধর কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছে না।

সরকারের অবহেলার কারণেই স্বাস্থ্যখাতে চরম সঙ্কট বিরাজ করছে। এ সঙ্কটের মধ্যেও অনেক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী নিবেদিতভাবে কাজ করছেন। তাদের ধন্যবাদ জানাই। যার যার অবস্থানে থেকে সবাইকে সচেতনভাবে কাজ করতে হবে।

এদিকে, করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি করোনা সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো পরামর্শ এবং প্রাথমিক জরুরি স্বাস্থ্যসেবার জন্য ২৪ ঘণ্টার মোবাইল হটলাইন চালু করেছে জেডআরএফ ও ড্যাব।

রোগের ধরণ বুঝে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সঙ্গে ফোনে সংযুক্ত করার পাশাপাশি সমস্যা জেনে টেলিফোনেই রোগীকে প্রেসক্রিপশন দেওয়া এবং মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে রোগীর চাহিদা অনুযায়ী ওষুধ রোগীর বাড়ি পৌঁছানোর জন্য একটি টিম বিনামূল্যে সেবায় নিয়োজিত আছেন।

এছাড়া দেশের প্রায় সব বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরতদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বা পিপিই নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ও ড্যাব।

 

 

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

চিকিৎসকদের পিপিই দিল জেডআরএফ-ড্যাব

আপডেট সময় ০১:১৫:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সঙ্কট থেকে বাংলাদেশের মানুষ যাতে দ্রুত বেরিয়ে আসতে পারে সে জন্য নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। এ লক্ষ্যে কর্মতৎপরতা শুরু করেছে উভয় সংগঠন।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) বেলা ১১ টায় রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ও অন্যদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) দিয়েছে জেডআরএফ ও ড্যাব। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডক্টরস অ্যাসোসিশেয়ন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ, মহাসচিব অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুস সালাম, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের (জেডআরএফ) আহমেদ শফিকুল হায়দার পারভেজ, অধ্যাপক ড. মো. মোর্শেদ হাসান খান, ডা. শাহ মুহাম্মদ আমান উল্লাহ্, প্রকৌশলী মাহবুব, ব্যারিস্টার মীর হেলাল, অধ্যাপক ড. আব্দুল করিম,

অ্যামট্যাবের বিপ্লবুজ্জামান বিপ্লব, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, বেসরকারি মেডিক্যাল ও ডেন্টাল কলেজ শাখা ছাত্রদলের ডা. রাকিবুল ইসলাম আকাশ, আতিকুর রহমান রুমন, শায়রুল কবির খান। এছাড়া হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের ডেপুটি ডিরেক্টর ডা. এনামুল সহ চিকিৎসক, নার্সহ অন্যান্য ব্যক্তিরা।

জেডআরএফ ও ড্যাবের এ কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশবাসী এখন বৈশ্বিক মহামারি করোনার ভয়ে ভীত এবং মারাত্মক সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে।

পরীক্ষিতদের মধ্যে করোনা রোগী শনাক্তকরণের হার প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে। ঢাকাসহ সারাদেশর ২০ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের থাবা লক্ষ্য করা গেছে। এই সঙ্কট মোকাবিলায় আমাদের জাতীয় ঐক্য দরকার।

রিজভী বলেন, যখন থেকে করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব শুরু হয়েছে সরকার তখন থেকেই কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলেই মেডিক্যাল সেক্টরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধর কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছে না।

সরকারের অবহেলার কারণেই স্বাস্থ্যখাতে চরম সঙ্কট বিরাজ করছে। এ সঙ্কটের মধ্যেও অনেক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী নিবেদিতভাবে কাজ করছেন। তাদের ধন্যবাদ জানাই। যার যার অবস্থানে থেকে সবাইকে সচেতনভাবে কাজ করতে হবে।

এদিকে, করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি করোনা সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো পরামর্শ এবং প্রাথমিক জরুরি স্বাস্থ্যসেবার জন্য ২৪ ঘণ্টার মোবাইল হটলাইন চালু করেছে জেডআরএফ ও ড্যাব।

রোগের ধরণ বুঝে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সঙ্গে ফোনে সংযুক্ত করার পাশাপাশি সমস্যা জেনে টেলিফোনেই রোগীকে প্রেসক্রিপশন দেওয়া এবং মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে রোগীর চাহিদা অনুযায়ী ওষুধ রোগীর বাড়ি পৌঁছানোর জন্য একটি টিম বিনামূল্যে সেবায় নিয়োজিত আছেন।

এছাড়া দেশের প্রায় সব বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরতদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বা পিপিই নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ও ড্যাব।