ঢাকা ০৫:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনায় রোজগার নেই, আগুনে পুড়ল মাথা গোঁজার ঠাঁই

ক্ষতিগ্রস্ত ভ্যানচালক ও তার পরিবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ  করোনার দুঃসময়ে ঝালকাঠির নলছিটিতে আগুনে মালামালসহ পুড়ে গেছে ভ্যানচালকের বসতঘর। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কুশঙ্গল ইউনিয়নের ডহরা গ্রামে অগ্নিকান্ডের এ ঘটনা ঘটে

ক্ষতিগ্রস্ত ভ্যান গাড়িচালক আলতাফ হোসেন জানান, সকালে তিনি ভ্যান গাড়ি নিয়ে বাইরে বের হন। তাঁর স্ত্রী ও সন্তানরা বড়ির পাশের খালে মাটি আনতে যায়।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রতিবেশীরা তাঁর ঘরের ভেতর আগুন জলতে দেখে চিৎকার দেয়। এ সময় স্থানীয়রা এসে পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘর তালাবদ্ধ থাকার কারণে কোন মালামাল রক্ষা করা যায়নি।

খবর পেয়ে কুশঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন সিকদার তাৎক্ষণিকভাবে পরিবারটির জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। বিদ্যুতের শর্টসার্কিটের মধ্যেমে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

ভ্যানচালক আলতাফ হোসেন বলেন, সামান্য রোজগারে সংসার চলে। অনেক কষ্ট করে ঘর তুলেছিলাম, আমার সবস্বপ্ন পুড়ে গেছে। করোনায় এমনিতেই রোজগার কমে গেছে, এর মধ্যে মাথা গোঁজার ঠাইটুকো পুড়ে গেলো।

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

করোনায় রোজগার নেই, আগুনে পুড়ল মাথা গোঁজার ঠাঁই

আপডেট সময় ০৪:৫৩:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ  করোনার দুঃসময়ে ঝালকাঠির নলছিটিতে আগুনে মালামালসহ পুড়ে গেছে ভ্যানচালকের বসতঘর। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কুশঙ্গল ইউনিয়নের ডহরা গ্রামে অগ্নিকান্ডের এ ঘটনা ঘটে

ক্ষতিগ্রস্ত ভ্যান গাড়িচালক আলতাফ হোসেন জানান, সকালে তিনি ভ্যান গাড়ি নিয়ে বাইরে বের হন। তাঁর স্ত্রী ও সন্তানরা বড়ির পাশের খালে মাটি আনতে যায়।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রতিবেশীরা তাঁর ঘরের ভেতর আগুন জলতে দেখে চিৎকার দেয়। এ সময় স্থানীয়রা এসে পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘর তালাবদ্ধ থাকার কারণে কোন মালামাল রক্ষা করা যায়নি।

খবর পেয়ে কুশঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন সিকদার তাৎক্ষণিকভাবে পরিবারটির জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। বিদ্যুতের শর্টসার্কিটের মধ্যেমে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

ভ্যানচালক আলতাফ হোসেন বলেন, সামান্য রোজগারে সংসার চলে। অনেক কষ্ট করে ঘর তুলেছিলাম, আমার সবস্বপ্ন পুড়ে গেছে। করোনায় এমনিতেই রোজগার কমে গেছে, এর মধ্যে মাথা গোঁজার ঠাইটুকো পুড়ে গেলো।