ঢাকা ১২:১১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নওগাঁয় হোম কোয়ারেন্টিনে ১২৭৪জন

স্টাফ রিপোর্টার (নওগাঁ ) :  নওগাঁ জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরিত ব্যক্তি সংখ্যা বাড়ছে। জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে রবিবার বেলা ১০টা থেকে সোমবার বেলা ১০টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় জেলার ১১টি উপজেলায় মোট ১৪৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরণ করা হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়ালো মোট ১ হাজার ২শ ৭৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার ১০টি উপজেলায় উপজেলা ভিত্তিক হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরণের সংখ্যা হচ্ছে সদর উপজেলায় ৫৮ জন, রানীনগর উপজেলায় ৩ জন, বদলগাছি উপজেলায় ২ জন, মহদেবপুর উপজেলায় ৭ জন, সাপাহার উপজেলায় ৫ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৫ জন, মান্দা উপজেলায় ১০ জন, আত্রাই উপজেলায় ৩১ জন, পত্নীতলা উপজেলায় ২৩ জন এবং পোরশা উপজেলায় ৩ জন। এ সময় নিয়ামতপুর উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে কাউকে পাঠানো হয়নি।

কন্ট্রোলরুম সূত্রে গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১১৯ জন। এ নিয়ে সর্বমোট ছাড়পত্র প্রাপ্ত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬১ জনে। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ১ হাজার ১শ ১৩ জন। জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহকারী পুলিশ সুপার সুরাইয়া খাতুন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশীদ জানিয়েছেন জেলার সকল সাপ্তাহিক হাট বাজার, হোটেল ও রেস্তোরা আপাতত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে কেউ ইচ্ছা করলে এসব হোটেল ও রেস্তোরা থেকে তাঁদের প্রয়োজনীয় খাবার সামগ্রী ক্রয় করে বাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন। হোটেল রেস্তোরায় বসে আড্ডা দিয়ে খাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারী করা হয়েছে।

অপরদিকে নওগাঁ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পক্ষ থেকে শহরের মুদি দোকান ও ঔষধের দোকান ছাড়া সব রকমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সন্ধ্যার পর থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। নওগাঁ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মো. ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

নওগাঁয় হোম কোয়ারেন্টিনে ১২৭৪জন

আপডেট সময় ০১:৩৮:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৩ মার্চ ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার (নওগাঁ ) :  নওগাঁ জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরিত ব্যক্তি সংখ্যা বাড়ছে। জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে রবিবার বেলা ১০টা থেকে সোমবার বেলা ১০টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় জেলার ১১টি উপজেলায় মোট ১৪৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরণ করা হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়ালো মোট ১ হাজার ২শ ৭৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলার ১০টি উপজেলায় উপজেলা ভিত্তিক হোম কোয়ারেন্টিনে প্রেরণের সংখ্যা হচ্ছে সদর উপজেলায় ৫৮ জন, রানীনগর উপজেলায় ৩ জন, বদলগাছি উপজেলায় ২ জন, মহদেবপুর উপজেলায় ৭ জন, সাপাহার উপজেলায় ৫ জন, ধামইরহাট উপজেলায় ৫ জন, মান্দা উপজেলায় ১০ জন, আত্রাই উপজেলায় ৩১ জন, পত্নীতলা উপজেলায় ২৩ জন এবং পোরশা উপজেলায় ৩ জন। এ সময় নিয়ামতপুর উপজেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে কাউকে পাঠানো হয়নি।

কন্ট্রোলরুম সূত্রে গত ২৪ ঘণ্টায় হোম কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ১১৯ জন। এ নিয়ে সর্বমোট ছাড়পত্র প্রাপ্ত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬১ জনে। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ১ হাজার ১শ ১৩ জন। জেলা পুলিশ কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহকারী পুলিশ সুপার সুরাইয়া খাতুন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে জেলা প্রশাসক মো. হারুন-অর-রশীদ জানিয়েছেন জেলার সকল সাপ্তাহিক হাট বাজার, হোটেল ও রেস্তোরা আপাতত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে কেউ ইচ্ছা করলে এসব হোটেল ও রেস্তোরা থেকে তাঁদের প্রয়োজনীয় খাবার সামগ্রী ক্রয় করে বাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন। হোটেল রেস্তোরায় বসে আড্ডা দিয়ে খাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারী করা হয়েছে।

অপরদিকে নওগাঁ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পক্ষ থেকে শহরের মুদি দোকান ও ঔষধের দোকান ছাড়া সব রকমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সন্ধ্যার পর থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। নওগাঁ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মো. ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।