ঢাকা ০৬:১১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্কুল দেরিতে চালুর পরামর্শ ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞের

ব্রিটিশ স্কুল

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  যুক্তরাজ্যের ল্যানচেশায়ারের জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ডা. সাকথি কারুণাথিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, সামনের মাসেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করা হলে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যেতে পারে।

এদিকে ব্রিটিশ সরকার চেষ্টা করছে ১ জুন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করার ব্যাপারে। ডা. সাকথি কারুণাথিনি মনে করেন, বিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়া হলে করোনা সংক্রমণের ফলে দেশ যে ধরনের সঙ্কটে পড়বে, তা মোকাবিলার সামর্থ থাকবে না।

এদিকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার জেরে যুক্তরাজ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে চলতি বছরের মার্চের মাঝামাঝি থেকে।

ব্রিটেনর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র জানান, আমরা চাই শিক্ষার্থীরা যত দ্রুত সম্ভব বিদ্যালয়ে ফিরে যাক। কারণ, তাদের শিক্ষা এবং ভবিষ্যতের জন্য তাদের শিক্ষক ও সহপাঠীদের সংস্পর্শ অত্যন্ত জরুরি।

তবে তিনি এও বলেছেন, কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখনই চালু ও কিছু শিক্ষার্থী এখনই বিদ্যালয়ে ফিরতে পারবে না।

তিনি আরো বলেছেন, আমরা মনে করি না যে, বর্তমানে যে লকডাউন পলিসি এবং মানুষজনকে শারীরিকভাবে দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হচ্ছে, তার ফলে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় সংক্রমণ থেমে যাবে। সূত্র : বিবিসি

 

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

স্কুল দেরিতে চালুর পরামর্শ ব্রিটিশ বিশেষজ্ঞের

আপডেট সময় ০৫:০৭:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  যুক্তরাজ্যের ল্যানচেশায়ারের জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ডা. সাকথি কারুণাথিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, সামনের মাসেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করা হলে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যেতে পারে।

এদিকে ব্রিটিশ সরকার চেষ্টা করছে ১ জুন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করার ব্যাপারে। ডা. সাকথি কারুণাথিনি মনে করেন, বিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়া হলে করোনা সংক্রমণের ফলে দেশ যে ধরনের সঙ্কটে পড়বে, তা মোকাবিলার সামর্থ থাকবে না।

এদিকে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার জেরে যুক্তরাজ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে চলতি বছরের মার্চের মাঝামাঝি থেকে।

ব্রিটেনর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র জানান, আমরা চাই শিক্ষার্থীরা যত দ্রুত সম্ভব বিদ্যালয়ে ফিরে যাক। কারণ, তাদের শিক্ষা এবং ভবিষ্যতের জন্য তাদের শিক্ষক ও সহপাঠীদের সংস্পর্শ অত্যন্ত জরুরি।

তবে তিনি এও বলেছেন, কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখনই চালু ও কিছু শিক্ষার্থী এখনই বিদ্যালয়ে ফিরতে পারবে না।

তিনি আরো বলেছেন, আমরা মনে করি না যে, বর্তমানে যে লকডাউন পলিসি এবং মানুষজনকে শারীরিকভাবে দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হচ্ছে, তার ফলে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় সংক্রমণ থেমে যাবে। সূত্র : বিবিসি