ঢাকা ১১:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাসায় অগ্নিদগ্ধ যুগান্তরের সাংবাদিক নান্নু আইসিইউতে

মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু

স্টাফ রিপোর্টারঃ   নিজ বাসায় গ্যাসের আগুনে দগ্ধ হয়েছেন দৈনিক যুগান্তরের ক্রাইম রিপোর্টার মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু। তাঁর শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

যুগান্তরের সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার এবং ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু বৃহস্পতিবার শেষরাতের দিকে আফতাব নগরের নিজ বাসায় অগ্নিদগ্ধে গুরুতর আহত হয়েছেন।

একই বাসায় কয়েক মাস আগে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তাঁর একমাত্র ছেলে পিয়াস মারা গেছেন।

মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নুর চিকিৎসকরা বলছেন তার শরীরের প্রায় ৬০ শতাংশের মতো পুড়ে গেছে। অবস্থা আশংকাজনক বলে জানান চিকিৎসকরা।

বৃহস্পতিবার রাত্রিকালীন অফিস থেকে বাসায় ফিরে রাত তিনটার দিকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। ধারণা করা হচ্ছে গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে গ্যাস জমা হয়েছিল।

রাত তিনটায় পাশের রুমে সিগারেটের আগুনের জন্য দেশলাইয় জ্বলতেই সারা ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনার মাত্র ছয়মাস আগে এই বাসায় হিটার বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তাঁদের একমাত্র সন্তান সঙ্গীত পরিচালক পিয়াস প্রাণ হারান। বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ নান্নুর অগ্নিদগ্ধের খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে গেছেন।

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

বাসায় অগ্নিদগ্ধ যুগান্তরের সাংবাদিক নান্নু আইসিইউতে

আপডেট সময় ১২:০৪:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুন ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ   নিজ বাসায় গ্যাসের আগুনে দগ্ধ হয়েছেন দৈনিক যুগান্তরের ক্রাইম রিপোর্টার মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু। তাঁর শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

যুগান্তরের সিনিয়র ক্রাইম রিপোর্টার এবং ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নু বৃহস্পতিবার শেষরাতের দিকে আফতাব নগরের নিজ বাসায় অগ্নিদগ্ধে গুরুতর আহত হয়েছেন।

একই বাসায় কয়েক মাস আগে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তাঁর একমাত্র ছেলে পিয়াস মারা গেছেন।

মোয়াজ্জেম হোসেন নান্নুর চিকিৎসকরা বলছেন তার শরীরের প্রায় ৬০ শতাংশের মতো পুড়ে গেছে। অবস্থা আশংকাজনক বলে জানান চিকিৎসকরা।

বৃহস্পতিবার রাত্রিকালীন অফিস থেকে বাসায় ফিরে রাত তিনটার দিকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। ধারণা করা হচ্ছে গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে গ্যাস জমা হয়েছিল।

রাত তিনটায় পাশের রুমে সিগারেটের আগুনের জন্য দেশলাইয় জ্বলতেই সারা ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনার মাত্র ছয়মাস আগে এই বাসায় হিটার বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ হয়ে তাঁদের একমাত্র সন্তান সঙ্গীত পরিচালক পিয়াস প্রাণ হারান। বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ নান্নুর অগ্নিদগ্ধের খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে গেছেন।