ঢাকা ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নওগাঁয় জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সচেতনতামূলক কর্মসুচী (ভিডিও)

স্টাপ রিপোর্টার (নওগাঁঃ)  করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টিতে নওগাঁয় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে ও সেনাবাহিনী সচেতনতামুলক বিভিন্ন কাজ শুরু করেছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসন ও সেনা সদস্যরা নওগাঁ শহরের বিভিন্ন স্থানে এ কাজ শুরু করেন। নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ জানান, সেনা সদস্যরা জেলা প্রশাসনের সাথে শহরের মুক্তির মোড় ও গোস্তহাটির মোড়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরন, মাইকিং ও বাজার মনিটরিং করেন ।

বগুড়া সেনানিবাসের ১০ বি‘র অধিনায়ক লে: কর্নেল মাহবুদ হাসানের নেতৃত্বে সেনা সদস্য মাঠে কাজ করছেন।

কোথাও যেন জনসমাগম না হয় বা জনগণ যাতে অযথা বাহিরে বের না হয়ে বাড়িতে অবস্থান করেন, সে বিষয়ে তাঁরা নজরদারি করছেন। মানুষকে করোনা ভাইরাসের সম্পর্কে সচেতন করছেন তাঁরা।

এছাড়াও সেনাবাহিনী পক্ষ থেকে লিফলেট বিতরন, মাইকিং করে জনগণকে বাড়িতে নিরাপদে থাকা ও অপরকে নিরাপদে রাখার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এছাড়াও করোনা আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম যেন কেউ বাড়াতে না পারেন, সে বিষয়টি তাঁরা নিশ্চিত করছেন।

এছাড়া শহরের বিভিন্ন রাস্তায় জীবানুনাশক ঔষধ মিশ্রিত পানি ছিটানো হচ্ছে। জেলার ১১টি উপজেলায় স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করেই সেনা সদস্যরা তাদের দায়িত্ব পালন করছেন।

ট্যাগস

আলিশান চাল, নওগাঁ

বিজ্ঞাপন দিন

নওগাঁয় জেলা প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সচেতনতামূলক কর্মসুচী (ভিডিও)

আপডেট সময় ০৩:৩৬:২৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০

স্টাপ রিপোর্টার (নওগাঁঃ)  করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টিতে নওগাঁয় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে ও সেনাবাহিনী সচেতনতামুলক বিভিন্ন কাজ শুরু করেছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসন ও সেনা সদস্যরা নওগাঁ শহরের বিভিন্ন স্থানে এ কাজ শুরু করেন। নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ জানান, সেনা সদস্যরা জেলা প্রশাসনের সাথে শহরের মুক্তির মোড় ও গোস্তহাটির মোড়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরন, মাইকিং ও বাজার মনিটরিং করেন ।

বগুড়া সেনানিবাসের ১০ বি‘র অধিনায়ক লে: কর্নেল মাহবুদ হাসানের নেতৃত্বে সেনা সদস্য মাঠে কাজ করছেন।

কোথাও যেন জনসমাগম না হয় বা জনগণ যাতে অযথা বাহিরে বের না হয়ে বাড়িতে অবস্থান করেন, সে বিষয়ে তাঁরা নজরদারি করছেন। মানুষকে করোনা ভাইরাসের সম্পর্কে সচেতন করছেন তাঁরা।

এছাড়াও সেনাবাহিনী পক্ষ থেকে লিফলেট বিতরন, মাইকিং করে জনগণকে বাড়িতে নিরাপদে থাকা ও অপরকে নিরাপদে রাখার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এছাড়াও করোনা আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম যেন কেউ বাড়াতে না পারেন, সে বিষয়টি তাঁরা নিশ্চিত করছেন।

এছাড়া শহরের বিভিন্ন রাস্তায় জীবানুনাশক ঔষধ মিশ্রিত পানি ছিটানো হচ্ছে। জেলার ১১টি উপজেলায় স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করেই সেনা সদস্যরা তাদের দায়িত্ব পালন করছেন।